সংবাদ শিরোনাম :
রাজাপুরে পিলার সদৃশ বস্তুসহ চোরাচালান চক্রের ৮ সদস্য আটক ঝালকাঠিতে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের দায়ে এক আসামির আজীবন সাজা ঝালকাঠিতে কালেক্টরেট সহকারীদের কর্মবিরতি ও সমাবেশ ভয়াল ১২ নভেম্বর উপকূল দিবস ঘোষণার দাবিতে ঝালকাঠিতে মানববন্ধন ঝালকাঠিতে ছেলে হত্যার বিচার দাবিতে বাবা মায়ের সংবাদ সম্মেলন ঝালকাঠিতে নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত ঝালকাঠিতে তিন দিনব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলা শুরু কাঠালিয়ার ছৈলারচরকে পর্যটন সুবিধার দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান ঝালকাঠিতে জাতীয় পার্টির ‘গণতন্ত্র দিবস’ পালিত ঝালকাঠিতে নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে জেল হত্যা দিবস পালিত

Advertisement

ঝালকাঠিতে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের দায়ে এক আসামির আজীবন সাজা

ঝালকাঠিতে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের দায়ে এক আসামির আজীবন সাজা

স্টাফ রিপোর্টার ঃ
ঝালকাঠিতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-২ আদালত ধর্ষণের দায়ে আজীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি হানিফ কবিরকে (৪০) কারাগারে প্রেরণ করেছে। তার বিরুদ্ধে কাজের মেয়ে বাক প্রতিবন্ধীকে (১৬) ধর্ষণ করার দায়ে তাকে এই সাজা প্রদান করা হয়েছিল। বুধবার এই আদালতের বিচারক শেখ মো. তোফায়েল হাসান আদেশ প্রদান করেন। ২০০৯ সালে ৫ আগষ্ট থেকে মো. হানিফ কবিরের বাড়িতে কাজের মেয়ে হিসেবে থাকা বাক প্রতিবন্ধীকে একাধিকবার ধর্ষণ করার ফলে সে গর্ভবতী হয়ে সন্তানের জন্ম দেয়। কিন্তু হানিফ কবির বাক প্রতিবন্ধীকে সামাজিক স্বীকৃতি দেয়নি। এই ঘটনায় বাক প্রতিবন্ধীর মা, ফুলছন বেগম বাদী হয়ে ২০১০ সালে এই ট্রাইবুনালে মামলা দায়ের করেন।
২০১৮ সালে ৭ জুন ঝালকাঠি সদর উপজেলার চৌপালা গ্রামের ফয়জুর আলির পুত্র মো. হানিফ কবিরকে আজীবন কারাদন্ড প্রদান করেন আদালত। রায় ঘোষণাকালীন দন্ডপ্রাপ্ত এই আসামি পলাতক ছিল। সম্প্রতি হানিফ কবির ঢাকা তেজগাঁও থানায় অন্য একটি মামলার আসামি হিসেবে গ্রেফতার হয়। তাকে প্রোডাকশন দিয়ে ঝালকাঠির আদালতে আনা হয় এবং আদালত তাকে সাজা পরোয়ানাসহ জেলা কারাগারে প্রেরণ করেছে। এদিকে ঝালকাঠির সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত যৌতুক নিরোধ আইনের মামলায় সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি আল-আমিন হাওলাদারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে। বুধবার এই আদালতের বিচারক শেখ আনিসুজ্জামান সাজা পরোয়ানা কোর্ট পুলিশের মাধ্যমে রাজাপুর থানায় প্রেরণ করেছেন। সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি আল-আমিন হাওলাদার জেলার রাজাপুর উপজেলার বড় গালুয়া গ্রামের মো. সিরাজউদ্দিন হাওলাদারের পুত্র। আল-আমিন হাওলাদারের স্ত্রী বাদী হয়ে ২০১৭ সালে যৌতুক নিরোধ আইনে মামলা দায়ের করেন। তাকে ২ বছরের সাজার সাথে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 www.jhalakatibarta.com
Developed BY Website-open.com
error: Content is protected !!