সংবাদ শিরোনাম :

Advertisement

ঝালকাঠিতে দাফন করার ২১ বছর পরেও অক্ষত মৃতদেহ

ঝালকাঠিতে দাফন করার ২১ বছর পরেও অক্ষত মৃতদেহ

স্টাফ রিপোর্টার :
ঝালকাঠিতে দাফন করার ২১ বছর পরেও অক্ষত অবস্থায় একটি মৃতদেহ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অসংখ্য মানুষ ওই মৃতদেহ দেখতে ভিড় করছেন।
জানা যায়, ঝালকাঠি সদর উপজেলার গাবখান ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের চরকাঠি গ্রামের মো. মুজাফফর আলী হাওলাদার ২১ বছর আগে মারা যান। বিষখালী নদীর তীরবর্তী বাড়ির পাশে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁর মৃতদেহ দাফণ করা হয়। গ্রামটি নদীগর্ভে বিলিন হওয়ার উপক্রম হয়েছে। তাই মঙ্গলবার সকালে মৃত মুজাফফর আলী হাওলাদারের সন্তানরা তাঁর কবর স্থানান্তরের উদ্যোগ নেয়। কবরটি খুড়লে তাতে দেখা যায় মৃত ব্যক্তির দাফনের কাপড় যেমন ছিলো সেরকম আছে। এমনকি মৃত্যু দেহটিও অক্ষত আছে। শুধু চামড়াগুলো হারের সাথে মিশে গেছে।
মো. মুজাফফর আলী হাওলাদারের ছেলে মো. আবুল বাশার বলেন, আমার মা তিন মাস আগে মারা যান। বাবার কবরটি নদীতে ভেঙে যাওয়া উপক্রম হওয়ায় মায়ের কবরের কাছে বাবা কবরটি স্থান্তর করতে চেয়েছি। কিছু দিন আগে আমার এক ভাই স্বপ্নে দেখেন বাবার কবর অন্য স্থানে স্থানন্তর করার। তাই মঙ্গলবার সকালে কবর খুড়তে যাই। কবর খুড়ে দেখি দাফনের কাপড় যেমন ছিল তেমনি আছে। সাথে দেহ অক্ষত আছে। আমরা পুনরায় বাবার লাশ মায়ের কবরের পাশে দাফন করেছি।
গাবখান ধানসিঁড়ি ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্ততা মো. কামরুল ইসলাম বলেন, সকাল থেকে অলৌকিক এ ঘটনাটি দেখতে শত শত উৎসুক জনতা তাদের ভিড় করে।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 www.jhalakatibarta.com
Developed BY Website-open.com
error: Content is protected !!