সংবাদ শিরোনাম :

Advertisement

সাংবাদিকতাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখায় সুজনের পক্ষ থেকে অ্যাডভোকেট আক্কাস সিকদারকে সংবর্ধনা

সাংবাদিকতাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখায় সুজনের পক্ষ থেকে অ্যাডভোকেট আক্কাস সিকদারকে সংবর্ধনা

স্টাফ রিপোর্টার:
সাংবাদিকতাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখায় সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজনের পক্ষ থেকে ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আক্কাস সিকদারকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।
সাংবাদিকতার পাশাপাশি সামাজিক কর্মকান্ডেও সফলতার সঙ্গে কাজ করায় আক্কাস সিকদারকে একটি মানপত্র উপহার দেন সুজনের ঝালকাঠি সদর উপজেলা শাখার সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসাইন বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মানপত্র পাঠ করেন তিনি। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা চিত্তরঞ্জন দত্ত। বিশেষ অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মো. মাহিন উদ্দিন তালুকদার মঈন, প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুর রশিদ। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সংবর্ধিত প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. আক্কাস সিকদার ও সুজনের সদর উপজেলা সভাপতি মো. জাহাঙ্গির হোসাইন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সহসভাপতি মানিক রায়, সহসাধারণ সম্পাদক কেএম সবুজ, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সম্পাদক অলোক সাহা, সদস্য হাসনাইন তালুকদার দিবস, মিজানুর রহমান টিটু, জহিরুল ইসলাম জলিল ও মো. রাজু খান। আক্কাস সিকদার ১৯৯৭ সালে বরিশাল থেকে প্রকাশিত দৈনিক আজকের বার্তার ঝালকাঠি ব্যুরোতে স্টাফ রির্পোটার হিসেবে সাংবাদিকতায় নাম লেখান। পরবর্তীতে তিনি জাতীয় দৈনিক ভোরের ডাক, ভোরের কাগজ, দৈনিক জনতা, প্রথম আলো, যুগান্তর এবং বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেন। প্রিন্ট মিডিয়ার পাশাপাশি তিনি বৈশাখী টেলিভিশন, সিএসবি নিউজ, দেশ টিভি, ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন, ৭১ টিভি ও দীপ্ত টিভিতে কাজ করেন। বর্তমানে তিনি চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের জেলা প্রতিনিধি। ২০১০ সালে তিনি আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। আইনজীবী সাংবাদিক এ পরিচয় ছাড়াও তিনি হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশ নামে একটি মানবাধিকার সংগঠনের ঝালকাঠি শাখার প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করছেন। বর্তমান মেয়াদ নিয়ে তিনি তিনবার ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১১ সালে প্রথম আলোতে কাজ করার সময় র‌্যাবের গুলিতে পা হারানো লিমন হোসেনকে নিয়ে তিনি সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে একাধিক নিউজ করে আলোচিত হন। লিমন এবং তাঁর পরিবারকে আইনজীবী হিসেবে আইনিসহায়তাও প্রদান করেছেন আক্কাস সিকদার। করোনা দুঃসময়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন অনেক অসহায় মানুষকে। ঝালকাঠি সদর উপজেলা শাখার সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসাইন বলেন, আক্কাস সিকদার একজন সাংবাদিকই নয়, তিনি একজন মানবিক মানুষ। মানুষের কল্যাণে তাকে সবসময় কাছে পাওয়া যায়। বিপদে আপদে তিনি ঝাঁপিয়ে পড়েন। নিষ্ঠাবান ও সৎ সাংবাদিক আক্কাস সিকদারের রয়েছে দুর্দান্ত সাহস। নানা বিষয়ে তাঁর অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ তাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 www.jhalakatibarta.com
Developed BY Website-open.com
error: Content is protected !!