সংবাদ শিরোনাম :

Advertisement

নলছিটিতে গরুতে ঘাস খাওয়াকে কেন্দ্র করে হামলা, আহত ৫

নলছিটিতে গরুতে ঘাস খাওয়াকে কেন্দ্র করে হামলা, আহত ৫

নলছিটি সংবাদদাতা:
নলছিটিতে গরুর ঘাস খাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত হয়েছেন ৫ জন। নলছিটি উপজেলার চরবারইকরন এলাকায় গত ১৩ই মে আবদুল আজিজের সাথে গরুতে ঘাস খাওয়া নিয়ে একই এলাকার মিলন হাওলাদার গংদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়।

সূত্রমতে, আবদুল আজিজের গরুতে মিলন হাওলাদার গংদের জমির ঘাস খাওয়ায় তারা গরুটিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। যার প্রতিবাদ করতে গেলে মিলন হাওলাদার ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা মিলে আবদুল আজিজ ও তার ভাইয়ের ছেলে রিয়াদকে মারধর করে। বিষয়টি আবদুল আজিজ স্থানীয় চেয়ারম্যানকে জানান। চেয়ারম্যান উভয়পক্ষকে শান্ত থাকতে বলেন এবং তিনি উভয়পক্ষকে নিয়ে আলাপ আলোচনা করে মিমাংশা করে দেওয়ার আশ্বাস প্রদান করেন। কিন্তু আবদুল আজিজের প্রতিপক্ষ মিলন হাওলাদার গংরা চেয়ারম্যানের কাছে বিষয়টি জানানোর কারনে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। তারই জের ধরে গতকাল ২৮ জুন রবিবার সন্ধ্যা আনুমানিক ৭টার দিকে আবদুল আজিজের ভাইয়ের ছেলে রিয়াদ হোসেন(১৭) কে পূর্ব থেকে মারার জন্য ওত পেতে থাকা মিলন হাওলাদার, ওমর আলী হাওলাদার, রাজিব হাওলাদার, জহির হাওলাদার ও সজিব হাওলাদারসহ আরও কয়েকজন যুবক মিলে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি হামলা করে।

এসময় রিয়াদের ডাকচিৎকারে তার মা মোর্শেদা বেগম ছুটে আসলে তাকেও হামলাকারীরা শারিরীক ভাবে লাঞ্চিত করেন ও তার পড়নে থাকা কাপড় চোপড় টানা হেচড়া করে ছিড়ে ফেলে। ঘটনা চলাকালীন সময়ে মা ছেলে উভয়ের ডাকচিৎকারে তার বাড়ীর আরও সদস্যরা ছুটে আসেন যার মধ্যে রয়েছেন মদিনা বেগম,জাহানারা বেগম,মিরাজ হাওলাদার,যাহারা বর্তমানে হামলাকারীদের এলোপাতাড়ী হামলার শিকার হয়ে নলছিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

নলছিটি থানা পুলিশের একটি দল খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ছুটে গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দা সহ অন্যান্য লাঠি সোটা উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে নলছিটি থানায় আবদুল আজিজের ছোট ভাই মোঃ মোশারফ হোসেন কাজল বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে আরও উল্লেখ করা হয়েছে ঘটনার দিন দিবাগত রাতে আবদুল আজিজের বসত বাড়ী সংলগ্ন নলছিটি বাড়ইকরন রাস্তার দক্ষিন পার্শ্বে অবস্থিত দোকান ঘড়টি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। যার ফলে আনুমানিক আশি হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানানো হয়।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 www.jhalakatibarta.com
Developed BY Website-open.com
error: Content is protected !!