সংবাদ শিরোনাম :

Advertisement

বরিশাল বিভাগে নতুন করে ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ৯৩২

বরিশাল বিভাগে নতুন করে ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত, মোট আক্রান্ত ৯৩২

বরিশাল সংবাদদাতা: বরিশাল বিভাগের ৬ জেলায় এখন পর্যন্ত মোট ৯৩২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এছাড়া সুস্থ হয়েছেন ২১৪ জন।

শনিবার (৬ জুন) বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, শেষ ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল বিভাগের ৬ জেলায় নতুন করে আরও ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সংক্রমণ প্রতিরোধে বিদেশ থেকে আগত ছাড়াও সংক্রমিত অন্য জেলা ও এলাকা থেকে আগতদের কোয়ারেন্টিনে রাখার কার্যক্রম এখনও চলছে। গত ১০ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত বরিশাল সিটি করপোরেশনসহ বিভাগের ৬ জেলায় মোট ১৫ হাজার ৬৪২ জনকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

এদের মধ্যে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয় ১৪ হাজার ৫৫৭ জনকে। ইতোমধ্যেই তাদের মাঝ থেকে ১১ হাজার ৮৬৯ জন হোম কোয়ারেন্টিন শেষে ছাড়পত্র পেয়েছেন। এছাড়া বর্তমানে বিভাগের বিভিন্ন জেলায় হাসপাতালে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন ১ হাজার ৮৫ জন। প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন থেকে এখন পর্যন্ত ছাড়পত্র পেয়েছেন ৮৪১ জন। এর বাইরে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালসহ বিভাগের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে আইসোলেশনে চিকিৎসা প্রাপ্ত রোগীর সংখ্যা ৮১১। এরই মাঝে তাদের মধ্য থেকে ৩৬৫ জনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া শুধুমাত্র বরিশাল শের-ই- বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ও করোনা ওয়ার্ডে এখন পর্যন্ত মোট ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৯ জন করোনা পজেটিভ। বাকিরা করোনা উপসর্গে মারা গেছেন।

বিভাগের করোনা পরিস্থিতি প্রসঙ্গে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস জানিয়েছেন, বিভাগের মধ্যে এ পর্যন্ত বরিশাল জেলায় ৫৬৬ জন, পটুয়াখালীতে ৭৫, ভোলায় ৬২, পিরোজপুরে ৮৬, বরগুনায় ৮০ ও ঝালকাঠিতে ৬৩ জনের করোনা পজেটিভ এসেছে। এর মধ্যে গোটা বিভাগে ২১৪ জন সুস্থ হয়েছেন।

এছাড়া মারা যাওয়া করোনা পজেটিভ ১৮ জনের মধ্যে বরিশাল নগরের চান্দুরা মার্কেট এলাকায় ১ জন, কাজিপাড়ায় ১ জন, বাকেরগঞ্জে ১ জন ও মুলাদীতে ২ জনসহ মোট ৫ জন, পটুয়াখালী জেলার সদর উপজেলা, গলাচিপা, মির্জাগঞ্জ ও দুমকিতে ১ জন করে মোট ৪ জন, পিরোজপুর সদর নেছারাবাদ ও নাজিরপুরে ১ জন করে মোট ৩ জন, বরগুনা জেলার আমতলী ও বেতাগীতে ১ জন করে মোট ২ জন, ঝালকাঠির নলছিটি ও কাঠালিয়াতে ১ জন করে মোট ২ জন, এবং ভোলার লালমোহন ও চরফ্যাশনে ১ জন করে মোট ২ জন রয়েছেন বলে জানান বাসুদেব কুমার।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 www.jhalakatibarta.com
Developed BY Website-open.com
error: Content is protected !!