সংবাদ শিরোনাম :

Advertisement

ইতিহাস সৃষ্টি করলো জার্মানি- সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে হাজার হাজার মুসলমানদের ঈদের জামাত আদায়!

ইতিহাস সৃষ্টি করলো জার্মানি- সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে হাজার হাজার মুসলমানদের ঈদের জামাত আদায়!

মতিউর রহমান লিটু, জার্মানি থেকে: করোনা ভাইরাস প্রকোপে বিশ্বের কোথাও মুসলমানদের বিরাট জমায়েতে ঈদের নামাজ আদায় করা সম্ভব হয়নি কিন্তু জার্মানিতে অবস্থিত মুসলমানদের অনুরোধে ফ্রাঙ্কফোর্ট শহরের কাছে “সিটি অফ ওয়েজলার” একটি ব্যতিক্রমী ঈদের জামাত আয়োজন করে বিশ্বে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে।
আইকিয়া পার্কিং লটে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদের জামাত আদায় কালীন সময়ে প্রশাসন যথেষ্ট সহযোগিতা করেছে বলে জানা যায়। এমনকি মুসলমানদের এই অবিস্মরণীয় স্মৃতি দেখতে ড্রোনের মাধ্যমে সরকারিভাবে ভিডিও এবং স্থির চিত্র ধারণ করা হয়েছে। যারা কিনা এমন বিরল ঐতিহাসিক ঈদের নামাজে অংশ নিতে পেরেছেন তারাও ঈদের বাড়তি আনন্দ উপভোগ করেছেন বলে জানিয়েছেন এক জার্মান প্রবাসী বাংলাদেশী।
আসুন জেনে নেই কিভাবে সম্ভব হলো: সারা বিশ্বে যখন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সরকারি আইন করা হয়েছে- বন্ধ করে দেয়া হয়েছে মসজিদ, মাদ্রসা, গির্জা, মন্দির, সিনাগগ সহ সকল ধর্মীয় উপাসনালয় তখন থেকেই মূলত ধর্মীয় গুরুজন সহ স্বাভাবিক ধর্মভীরু মানুষের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। এরপরে চলে আসে, মসজিদে যেতে না পাড়ার ব্যথায় আকুল হয়ে ওঠে সকলের মন। চিন্তায় পরে যায় ঈদের জামাত নিয়ে!
তাহলে কি ঈদের নামাজ ছাড়াই উদযাপিত হবে ঈদুল ফিতর? এমন কঠিন পরিস্থিতির মাঝেই জার্মানির ফ্রাঙ্কফোর্ড শহরে কাছে সিটি অফ ওয়েজলার বাসীরা ব্যতিক্রমী আবেদন করে বসেন স্থানীয় আইকিয়া শপিং মলের ম্যানেজমেন্টের কাছে। আবেদনে উলে­খ করা হয় স্থানীয় আইন মেনে অর্থাৎ সামাজিক দুরুত্ব বজায় রেখেই আয়োজন করা হবে ঈদের জামাত!
আইকিয়া ম্যানেজমেন্ট স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে মুসলমানদের এমন স্পর্শ কাতর দাবিতে সারা দেন, ব্যাস! ঈদের দিন সকাল বেলা হাজার হাজার মুসলমান মাস্ক পরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আদায় করেন শুভ ঈদের জামাত! নামাজ চলাকালীন সময়ে মুসলমানদের সম্মান দেখিয়ে দূর থেকে ড্রোনের মাধ্যমে বেশ কিছু ছবি ও ভিডিও তোলা হয়েছে। এছাড়া মুসুলি­দের ক্যামেরায় রয়েছে হাজারো ছবি।
এযেন এক ঐতিহাসিক সাক্ষী- বিশ্বের একমাত্র দেশ জার্মান মুসলমানদের এই ইতিহাস গড়তে সাহায্য করলেন তাই স্থানীয় মুসলমানদের পক্ষে স্থানীয় প্রশসনকে জানালেন “থ্যাঙ্ক ইউ” ঈদ মোবারক!

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 www.jhalakatibarta.com
Developed BY Website-open.com
error: Content is protected !!