সংবাদ শিরোনাম :
রাজাপুরে পিলার সদৃশ বস্তুসহ চোরাচালান চক্রের ৮ সদস্য আটক ঝালকাঠিতে প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের দায়ে এক আসামির আজীবন সাজা ঝালকাঠিতে কালেক্টরেট সহকারীদের কর্মবিরতি ও সমাবেশ ভয়াল ১২ নভেম্বর উপকূল দিবস ঘোষণার দাবিতে ঝালকাঠিতে মানববন্ধন ঝালকাঠিতে ছেলে হত্যার বিচার দাবিতে বাবা মায়ের সংবাদ সম্মেলন ঝালকাঠিতে নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত ঝালকাঠিতে তিন দিনব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলা শুরু কাঠালিয়ার ছৈলারচরকে পর্যটন সুবিধার দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান ঝালকাঠিতে জাতীয় পার্টির ‘গণতন্ত্র দিবস’ পালিত ঝালকাঠিতে নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে জেল হত্যা দিবস পালিত

Advertisement

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে আর্থিক প্রণোদনা ও ঋণ প্রদানে মন্ত্রণালয়ের অনুরোধ

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে আর্থিক প্রণোদনা ও ঋণ প্রদানে মন্ত্রণালয়ের অনুরোধ

সুপার সাইক্লোন ‘আম্পান’ এর প্রভাবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের ক্ষয়-ক্ষতি পুষিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে সংশ্লিষ্ট চাষি, খামারি ও উদ্যোক্তাদের জরুরীভিত্তিতে নগদ আর্থিক সহায়তাসহ সহজ শর্তে সুদবিহীন ঋণ প্রদানের জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানিয়েছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার (২১ মে) মৎস্য ‍ও প্রাণিসম্পদ সচিব রওনক মাহমুদ স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি চিঠি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বরাবর পাঠানো হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, উপকূলীয় অঞ্চলে ‘আম্পান’-এর প্রভাবে মাছ, গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগীর ক্ষয়-ক্ষতির প্রাথমিক বিবরণ পাওয়া গেছে। তবে ক্ষয়-ক্ষতির চূড়ান্ত তালিকা প্রস্তুতকরণে যাচাই-বাছাই চলছে। চিঠিতে আরো জানানো হয়েছে, করোনা মহামারির বিরূপ প্রভাবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে বিনিয়োগকারীরা চরম আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। তদুপরি ‘আম্পান’ এর প্রভাবে এ খাত সংশ্লিষ্টরা আরও হতাশ হয়ে পড়ছেন। এ অবস্থা চলতে থাকলে প্রাণিজ পুষ্টির যোগানদাতা মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাত হুমকির মুখে পড়বে, যার প্রভাব গোটা জাতির উপর পড়বে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ পরিস্থিতিতে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্র্রণালয় ‘আম্পান’ এর ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এ খাতের চাষি, খামারি ও উদ্যোক্তাদের নগদ আর্থিক প্রণোদনাসহ সহজ শর্তে সুদবিহীন ঋণ প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, বরিশাল ও খুলনা বিভাগ হতে প্রাপ্ত প্রাথমিক তথ্যানুযায়ী ‘আম্পান’ এর প্রভাবে মৎস্য খাতে ক্ষতির পরিমাণ ৩০৫কোটি ৫০লক্ষ টাকা এবং প্রাণিসম্পদ খাতে ১ কোটি ০৪ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা। যার মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত মৎস্য খামারের সংখ্যা ২৪ হাজার ৩৫০টি এবং ক্ষতিগ্রস্ত গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগীর খামারের সংখ্যা ৫০ হাজার ১৩৮টি। সঃ বিঃ।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 www.jhalakatibarta.com
Developed BY Website-open.com
error: Content is protected !!